ফেসবুক আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক ব্লক করে দিলে কি করবেন?

Please log in or register to like posts.
Post

ফেসবুকে spamming করলে  ফেসবুক আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক ব্লক করে দিতে পারে। সমাধান সহ বিস্তারিত জানুন। 

ফেসবুকে বারবার আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক শেয়ার করার ফলে ফেসবুক যদি আপনার লিংক ব্লক করে দেয় তখন কি করবেন?
নিজে ভুক্তভোগী হওয়ার আগে জানতামই না যে ফেসবুক এভাবে ওয়েবসাইটের লিংক ব্লক করতে পারে! মুশকিল হলো ফেসবুক একবার কোনো ওয়েবসাইটের লিংক ব্লক করলে সেই লিংক আর ফেসবুকে কিছুতেই শেয়ার করা যায়না এমনকি মেসেজেও সেন্ড করা যায়না যতক্ষণ না ফেসবুক লিংকটি আনব্লক করে দিচ্ছে।
অনেকেরই শখের ব্লগটির ভিজিটরের প্রধান উৎসই হলো ফেসবুক! তাহলে সেই শখের ব্লগটির লিংক যদি ফেসবুক এভাবে ব্লক করে দেয় তো মাথায় হাত দেয়া ছাড়া আর কি করার থাকে ব্লগারের? 
প্রশ্ন হলো যদি এরকম বিপদে পড়েই যান তো কি করবেন? কিভাবে ফেসবুকে নিজের ব্লগের লিংকটি আনব্লক করবেন এবং স্বাভাবিকভাবে পুনরায় ফেসবুকে লিংক শেয়ার চালিয়ে যাবেন? মূলত এই বিষয় নিয়েই আজকের এই পোস্টটি। 
তবে এরকম সমস্যায় পড়ার আগেই যদি আমার এই লেখাটি পড়েন তাহলে প্রথমেই সতর্ক করে দিচ্ছি ফেসবুকে কোনো লিংক শেয়ার করার সময় প্রথম শেয়ারের পরে কমপক্ষে দুই মিনিট বিরতি দিয়ে দ্বিতীয়বার শেয়ার করবেন না হলে ফেসবুক এই শেয়ার স্প্যাম হিসেবে দেখবে এবং লিংকটি রিমুভ করে দেবে! আর বারবার একই ভুল করলে হঠাৎ করেই ব্লগের লিংকটি ব্লক করে দেবে! তবে দুটি শেয়ারের মাঝখানে কমপক্ষে দুইমিনিট বিরতি দিলেই আর স্প্যাম হবেনা তবুও আরো দীর্ঘ বিরতি দেয়া উচিৎ বাড়তি সতর্কতার জন্য তাহলেই আর এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবেনা। সাধারণত আমরা বেশি  ভিজিটরের আশায় একাধিক ফেসবুক গ্রুপে দ্রুত লিংক শেয়ার করতে গিয়ে এ ধরনের ভুল করে থাকি। তবে এই টিপসটি গুরুত্বের সাথে গ্রহণ করলে এই সমস্যায় আর পড়তে হবেনা ১০০% গ্যারান্টি দিয়েই বলা যায়।
আর যদি এই সমস্যায় পড়ার পরে লেখাটি পড়েন তাহলে আপনার জন্য ভালো মন্দ কিছু খবর অপেক্ষা করছে। আগেই বলেছি আমি নিজেও একজন ভুক্তভোগী এবং এজন্যই এ বিষয়ে নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই লেখায় উদ্বুদ্ধ হয়েছি। এখন এ সমস্যায় পড়ার পর থেকে উদ্ধার পাওয়া পর্যন্ত আমার সকল অভিজ্ঞতা এখানে মনোযোগ দিয়ে পড়লেই সবকিছু বুঝতে পারবেন এবং সমাধান পেয়ে যাবেন। কাজেই সমাধান পেতে হলে অবশ্যই সম্পূর্ণ লেখাটি মনযোগ সহকারে পড়তে হবে!

প্রথমেই বলবো কিভাবে এই মসিবতে পড়লাম। ইউটিউব ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে ফেসবুক পেজে নিজের ব্লগ লিংক শেয়ার করে ফ্রী বুস্ট করতে যেয়েই এ মসিবতের শুরু! আপনারা জানেন ফেসবুকে টাকার বিনিময়ে কোনো পোস্ট বা ওয়েবসাইট বুস্ট করা যায়। কিছু ইউটিউব ভিডিওতে দেখলাম তারা টিপস দিয়েছে কিভাবে ফেসবুকে টাকা ছাড়াই বিভিন্ন গ্রুপে পেজের পোস্ট শেয়ার করে ফ্রী বুস্ট করা যায়! এতে নাকি ফেসবুক স্প্যামিং ধরেনা! লোভে পড়ে নিজেও সেই ট্রিকস করে কোনো কিছু না ভেবেই দ্রুত নিজের ফেসবুক পেজ থেকে ব্লগের লিংক শেয়ার করলাম! কিছুক্ষণের মধ্যেই টের পেলাম কি ভুল করেছি! ফেসবুক আমার সাধের ব্লগের লিংকটাই ব্লক করে দিলো! অবশ্য বিষয়টি পরিস্কার বুঝতে বেশ কিছু সময় লাগলো! ততক্ষণে যা হবার তা হয়েই গেছে! এমনকি মেসেজেও কাউকে আর লিংক দেয়া যায়না! প্রথমে ভেবেছিলাম এটা সাময়িক। কয়েকদিন পর হয়তো আবার অটোমেটিক আনব্লক করে দেবে ফেসবুক। এরকম সাময়িক ব্লক তো আগেও করেছে ফেসবুক। গ্রুপে অতিরিক্ত লিংক শেয়ার করলে কয়েকদিনের জন্য গ্রুপে লিংক বা পোস্ট শেয়ার করা বন্ধ করে দেয় তারা! কিন্তু সেক্ষেত্রে তো নির্দিষ্ট করে নোটিফিকেশনে জানিয়ে দেয় ফেসবুক!এমনকি কবে কখন রেস্ট্রিকশন তুলে নেয়া হবে তাও নোটিফিকেশনে বলে দেয়। অথচ এবারের সমস্যা যেনো সম্পূর্ণই আলাদা! স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিয়ে কোনো মেসেজ দিলোনা ফেসবুক! এ নিশ্চয়ই আলাদা জাতের কোনো সমস্যা যার সম্মুখীন হইনি আগে! কাজেই আর দেরি না করে যথারীতি গুগলে সার্চ করা শুরু করলাম! কিন্তু এখানে একটি দুঃখের বিষয় বলি, এ বিষয়ে গুগলে সার্চ করে বাংলা কোনো লেখা বা ইউটিউব ভিডিওই পেলাম না! দুই তিনটি ইংরেজি পোস্ট পেলাম খুঁজে যেখানে ঠিক আমার সমস্যাটির সমাধানই বলা আছে এবং হিন্দি দু একটি ইউটিউব ভিডিও পেলাম! ততদিনে বুঝে গেছি যারতার ভিডিও দেখে কাজ করতে গেলে কি পরিণতি হয়! ইউটিউবে আজকাল যে কোনো বিষয়ে পন্ডিতের অভাব নেই! গরু ছাগলও ভিডিও টিউটোরিয়াল তৈরি করে টিপস ট্রিকস দেয়! 
এবার আসি কাজের কথায়।ফেসবুক কোনো লিংক ব্লক করলে প্রথমেই যা করতে হবে তা হলো কোনো ব্রাউজার দিয়ে ফেসবুকে লগইন করতে হবে। ফেসবুক এ্যাপ দিয়ে হবেনা। আমি ওপেরা মিনি ব্যাবহার করেছি। এরপর যে কাউকে আপনার ব্লক হওয়া লিংকটি মেসেজে সেন্ড করতে হবে। তবে মেসেজটি সেন্ড হবেনা,নিচের স্ক্রিনশটের মতো লেখা আসবে যার অর্থ হলো আপনি এটি পোস্ট করতে পারবেন না কারণ এতে একটি ব্লক হওয়া লিংক আছে। তবে আপনি যদি মনে করেন এটি ভুলক্রমে হয়েছে তাহলে আমাদের জানান।




লাল কালিতে এই মেসেজের নিচে নীল কালিতে লেখা Let us know তে ক্লিক করুন। এখন নিচের স্ক্রিনশটের মতো একটি ফরম আসবে।

ফরমে আপনার ব্লক হওয়া ওয়েবসাইটের লিংক সহ ইংরেজিতে দুই তিন বাক্যে লিখুন আপনার ওয়েবসাইটে কোনো ক্ষতিকারক কন্টেন্ট নেই। ফেসবুক টিম যেনো পুনরায় রিভিউ করে এবং আপনার লিংকটি আনব্লক করে দেয়। এরপর সেন্ড বাটনে ক্লিক করুন। ব্যাস এখন অপেক্ষার পালা। কমপক্ষে দশ পনেরো দিন পরে হয়তো ফেসবুক আপনাকে মেসেজ দিয়ে জানাতে পারে এবং লিংকটি আনব্লক করে দিতে পারে! 
এটি গেলো প্রথম পদ্ধতি। দ্বিতীয় পদ্ধতিতে ব্রাউজার থেকে ফেসবুক ডেভেলপার লিংকে ক্লিক করতে হবে। এখানে debug অপশনের উপরে একটি বক্স আসবে। সেখানে ব্লক হওয়া লিংকটি দিয়ে debug অপশনে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর নিচের স্ক্রিনশটের মতো আসবে। সেখানে Let us known তে ক্লিক করলেও আগের মতোই একটি ফরম আসবে। ফরমটি আগের মতোই পূরন করে সেন্ড করতে হবে।

আবার আগের মতোই অপেক্ষা করতে হবে। আমার প্রায় বিশ দিনের মতো অপেক্ষা করতে হয়েছিলো। এরপর ফেসবুক মেসেজ দিয়ে জানিয়ে দেয় এবং লিংকটি আনব্লক করে দেয়। 
কিন্ত আনব্লক হওয়ার পর ভুলক্রমে আবারও বেশি দ্রুত ফেসবুকে শেয়ার করে ফেলি ফলে পুনরায় ফেসবুক ব্লক করে দেয়! কিন্ত এবার এই দুই পদ্ধতিতে মেসেজ পাঠিয়ে প্রায় দুই মাস অপেক্ষা করেও সমস্যার সমাধান পেলাম না!
আরেকটি পদ্ধতিতে বলা হয়েছে ফেসবুকে একবার ব্লক হওয়া লিংকটি টাকা দিয়ে বুস্ট করলে নাকি আনব্লক হয়ে যায়! সে চেস্টাও করে দেখেছি কিন্তু বুস্ট আসলে করাই যায়না ব্লক হওয়া লিংক! লিংক বুস্ট করতে হলে তো ফেসবুক পেজে লিংকটি প্রথমে পোস্ট করতে হবে অথবা ওয়েবসাইট ইনফোতে লিংকটি যুক্ত করতে হবে। কিন্তু ব্লক হওয়া লিংক কিছুতেই ফেসবুক পেজে পোস্ট বা যুক্ত করা যায়না! ধরে নিলাম ব্লক হওয়ার আগেই আপনার ওয়েবসাইটটি পেজে যুক্ত করা ছিলো যেমন আমার ছিলো। সেক্ষেত্রে ফেসবুক পেজ থেকে ওয়েবসাইট প্রোমোট অপশনে গেলেই নিচের স্ক্রীনশটের মতো আসবে। সেখানে স্পষ্ট লেখা আছে  We weren’t able to create your ad preview! সুতরাং এটি কোনোভাবেই সম্ভব নয়!



এখন সর্বশেষ আরেকটি পদ্ধতি বাকি থাকলো আর সেটি হলো ডোমেইন নেম চেঞ্জ করা! উপরের সব পদ্ধতি চেষ্টা করেও যদি সমাধান না হয় তাহলে ডোমেইন নেম চেঞ্জ করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই!
অনেকে মনে করতে পারেন লিংক শর্টেনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ব্লক হওয়া লিংকটি শর্ট করে নিয়ে ফেসবুকে  শেয়ার করবেন কিন্তু সে আশা গুড়েবালি! আসলে সর্বপ্রথম এভাবেই সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু এভাবে ফেসবুককে ফাঁকি দিতে পারিনি! ঠিকই ধরে ফেলে ! 
প্রথমবার ব্লক হওয়ার পরে প্রথমের দুটি পদ্ধতি ব্যাবহার করেই সমাধান পেয়েছিলাম। কিন্তু দ্বিতীয়বার ব্লক হওয়ার পরে আর সে পদ্ধতি কাজে লাগেনি! আমার এ ব্লগটি তখন ছিলো ব্লগারের সাব ডোমেইন। শেষ পর্যন্ত একটি কাস্টম ডোমেইন যুক্ত করে ডোমেইন নেম চেঞ্জ করলাম এবং এখন দিব্যি সে সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে!
এই হলো আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। ফেসবুকে ইদানীং লিংক শেয়ার করা বেশ ঝামেলার। অনেক রেস্ট্রিকশন। কাজেই খুব সাবধানেই লিংক শেয়ার করা উচিত।

আপনাদের কারো এরকম সমস্যা কখনো হয়ে থাকলে এখানে কমেন্ট করে জানাতে পারেন এবং কিভাবে সমস্যার সমাধান করলেন তাও জানাতে ভুলবেননা। কস্ট করে পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

Reactions

1
0
0
0
0
0
Already reacted for this post.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *